তাম্বুলপুর দ্বিমুখী উচ্চবিদ্যালয়ের লেখাপড়ার মান নিয়ে হতাশ

তাম্বুলপুর দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের লেখা পড়ার মান নিয়ে হতাশা ব্যক্ত করেছেন অভিভাবক সহ  বিভিন্ন পেশা জীবির মানুষ। তাদের ভাষ্য তাম্বুলপুর দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয় ও তাম্বুল্পুর দিমুখী দাখিল মাদ্রাসায় বর্তমানে লেখা পড়ার মান খুবি খারাপ । গত কয়েকদিন আগের এস এস সি ও সমমানের পরিক্ষার ফলাফলের মুল্যায়ন থেকে তা উঠে আসে ।

স্থানীয় একটি সামাজিক সগঠন ” অন্নেষন” পীরগাছা উপজেলার তাম্বুল্পুর ইউনিয়নের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেরম মূল্যায়ন ও উৎসাহ মুলক পরিক্ষা নিয়ে আসছেন বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু সৎ ও উদ্দ্যামি ছাত্ররা। তারা বিভিন্ন উতসাহ প্রদান করে থাকেন ছাত্রসহ অভিভাবকদের।

সেটা পরিচালনার অর্থ যোগান এবং সার্বিক সহযোগিতা করেন ,শিক্ষা অনুরাগী মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম (পুলিশ)তিনি গত কয়েকদিন আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেখা পড়ার মান নিয়ে হতাশা ব্যাক্ত করে পোস্ট দেন।পাশাপাশি থানা সুন্দরগন্জের দিকে তাকালে হতাশার চিত্র প্রকট হয়! সুন্দরগন্জের তুলনায় অত্র প্রতিষ্ঠান দুটি রেজাল্ট অন্ত্যান্ত দুঃখ জনক বলেও মন্তব্য করেন।মেধা সম্পন্ন  শিক্ষক এবং অবকাটামো থাকার পরও লেখা পড়ার মান খারাপের ব্যপারে কোনকিছু গ্রহন যোগ্য নয়।

দির্ঘদিনের ঐতিহ্যবাহী প্রতিষ্ঠান দুটো বিভিন্ন অব্যাবস্থাপনার কারনে দিন দিন হারাতে বসছে মূল চেতনা। তিনি সহ সবার আশা করোনার মহামারী কাটিয়ে উঠলে যেন শিক্ষকমন্ডলী সহ সংশ্লিষ্ট সবাই নজর দিয়ে নামকরা প্রতিষ্ঠান দুটোর ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনা যায় সে ব্যাপারে উদ্দ্যগ নিবেন। এবং পিছিয়ে পড়া সমাজকে আবারো উদ্দীপনা দিবেন।

     আরও খবর দেখুন

ফেসবুক